স্মার্টওয়াচ কি? এর সুবিধা সমূহ এবন এটি দিয়ে কী কী করা যায়।

বর্তমানে আমরা রাস্তাঘাটে চলাফেরা করলে মাঝেমধ্যেই আমাদের  স্মার্ট ওয়াচ চোখে পড়ে থাকে। সাধারণ হাত ঘড়ির মতো দেখতে এই স্মার্টওয়াচ গুলি ক্রমশই মানুষের কাছে আসতে আসতে অনেক জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। আর এর নিজস্ব কিছু বৈশিষ্ট্যের কারণে খুব স্বাভাবিকভাবেই স্মার্টফোনের পাশাপাশি স্মার্টওয়াচ এখন ধীরে ধীরে পরিণিত হচ্ছে ব্যবহারযোগ্য প্রযুক্তিতে।

স্মার্টওয়াচ কি 

সহজ ভাষায় যদি বলা যায়- স্মার্টওয়াচ হলো একটি হাত ঘড়ির মতো দেখতে টাচস্ক্রিন ও নানারকম সেন্সরযুক্ত এবং বিভিন্ন কাজে সক্ষম ডিজিটাল একটি প্রযুক্তি। স্মার্টফোনের মতো সাধারণত এটিতেও অ্যাপ ব্যবহার করার সুযোগ রয়েছে। তাছাড়া এর মাধ্যমে ট্র্যাক করা যায় সাইকেলিং বা হাঁটাহাঁটির মত বিভিন্ন ধরনের আউটডোর এক্টিভিটিস। এমনকি এই যন্ত্রটির সাহায্যে শরীরের হার্ট রেট, ব্লাড প্রেসার, ইত্যাদি রেকর্ড করা যায় খুব সহজেই। হাতে থাকা এই ছোট যন্ত্রটিকে কাজের কম্পিউটারও বলা হয়ে থাকে। 

স্মার্টওয়াচ ব্যবহারের সুবিধা 

সাধারণত স্মার্টওয়াচ ব্যবহারের অনেক সুবিধা রয়েছে। তাদের মধ্যে বিশেষ কয়েকটি সুবিধা নিচে উল্লেখ করা হলো:

নোটিফিকেশন 

স্মার্টফোনের সাধারণত বিভিন্ন ধরনের অ্যাপস থেকে সারাদিন অনেক নোটিফিকেশন আসে। আর সেই নোটিফিকেশন গুলো খুবই চমৎকার ভাবে দেখা এবং অ্যাক্সেস করার সুবিধা রয়েছে স্মার্ট ওয়াচে।আর এর ভেতরে থাকা ছোট ভাইব্রেটরটি নোটিফিকেশন আসা মাত্রই আপনাকে ভাইব্রেশন করে জানিয়ে দিতে পারবে। 

অ্যাপস 

সাধারণত স্মার্টওয়াচের  সাইজ এবং স্কিন স্মার্টফোনের তুলনায় অনেক ছোট। তারপরও নির্মাতা প্রতিষ্ঠানগুলো স্মার্ট ওয়াচ এর জন্য স্বতন্ত্র অ্যাপ তৈরির চেষ্টায় বসে নেই। ছোট স্ক্রিনের ব্যবহারযোগ্য ইন্টারফেস তৈরি করে প্রতিদিনই চমৎকার সব এক মিলছে এখন স্মার্ট ওয়াচে।কিছুদিন আগে অ্যাপল তাদের স্মার্টওয়াচের জন্য উবারের একটি দারুন অ্যাপ রিলিজ করে। আর এই অ্যাপটির মাধ্যমে স্মার্টওয়াচ ব্যবহারকারীরা হাতে থাকা স্মার্টওয়াচটির মাধ্যমে ট্যাক্সি বা ক্যাব ডাকতে পারবেন। 

আরো জানুনঃ অনলাইনে আয় করার উপায়

কল রিসিভিং ও ভয়েস ইনপুট 

স্মার্টওয়াচের মাধ্যমে আপনি কল রিসিভ করে কথা বলতে পারবেন খুব ভালোভাবে। তবে এর জন্য স্মার্টওয়াচটির সিম কার্ড সাপোর্ট না হলে অবশ্যই স্মার্টওয়াচটি স্মার্টফোনের সাথে যুক্ত থাকতে হবে। আর কথা বলা নাই এখানে নোটিফিকেশন দেখা এবং অ্যাক্সেস করা যায়। তাই আপনি ইচ্ছা করলে এসএমএস পাবেন যার উত্তর দিতে পারবেন এর মাধ্যমে। 

তাছাড়া আপনি ভয়েস ইনপুট ব্যবহার করে এখানে কথা বলে যে কোন মেসেজ লিখে ফেলা সম্ভব। তাছাড়া আপনি স্মার্টওয়াচের মাধ্যমে নোটও লিখে রাখতে পারবেন। 

ফিটনেস ট্রাকিং 

সাধারণত স্মার্টওয়াচ ব্যবহারের সুবিধা টা আমার কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ মনে হয়েছে সেটি হচ্ছে ফিটনেস ট্রাকিং। আপনি হয়তো অ্যান্ড্রয়েড ফোন ব্যাবহার করছেন এবং এর জন্য সেরা কয়েকটি অ্যাপস আপনি ব্যবহার করছেন কিন্তু স্মার্টওয়াচ এসব অ্যাপগুলোকে সব ইন্ত্রিকেট করেছে। দিনে আপনি কতখানি হাঁটলেন কতখানি ঘুমালেন এবং কতখানি ওয়ার্কআউট করলেন সেটা খুব সহজে জানিয়ে দিতে পারবে স্মার্ট ওয়াচ। আর শুধু তাই নয় এর ভেতরে থাকা চমৎকার সব সেন্সরের কল্যাণে ব্যবহারকারীরা হার্ট রেট , ব্লাড প্রেসার ইত্যাদি মাপার কাজটা খুব সহজেই করতে পারেন। 

জিপিএস 

জিপিএস যোগাযোগ ব্যবস্থায় এনেছে এক অসাধারণ পরিবর্তন। যারা সাধারণত বাইরে থাকেন বা একটু ঘোরাঘুরি পছন্দ করেন তারা জানেন জিপিএস এর গুরুত্ব কতটা। স্মার্টওয়াচের সাথে থাকা জিপিএস আপনাকে যেকোন মুহুর্তে আপনার অবস্থান সম্পর্কে অবগত করবে। আর সেই সাথে সার্বক্ষণিক স্মার্টফোনের সাথে যুক্ত থাকায় এই স্মার্টওয়াচটি যদি কোন সময় হারিয়ে যায় তাহলে স্মার্ট ফোন ব্যবহার করে এটি খুব সহজেই খুজে বের করা যায়। 

দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারি 

স্মার্টওয়াচের ব্যাটারি সুবিধাটিও দারুন লেগেছে আমার কাছে। বর্তমানে যেসব স্মার্টওয়াচ গুলি বাজারে রয়েছে সেসব স্মার্টওয়াচ গুলি এক দিনের মতো ব্যাটারি ব্যাকআপ দিয়ে থাকে। আর আপনি যদি খুব বেশি ব্যবহার না করেন তাহলে নিঃসন্দেহে দুইদিন থেকে তিনদিন ব্যাটারি ব্যাকআপ এর সুবিধা পাবেন আপনি এখানে। 

বিনোদনের জন্য স্মার্ট ওয়াচ 

সাধারণত ওয়ারলেস হেডফোন ব্যবহার করে গান বা রেডিও শোনার  সময়, আপনি স্মার্টওয়াচের ভলিউম বৃদ্ধি বা হ্রাস করতে পারবেন। এমনকি আপনি স্মার্টফোন ব্যবহার না করেও সরাসরি এই স্মার্টওয়াচের মাধ্যমে গান শুনতে পারবেন। 

স্মার্টফোনের চেয়ে স্মার্টওয়াচ গুলি বেশি কার্যকর কারণ এটি খুবই সহজ, তবে স্মার্টফোনগুলো কার্যকর  কিন্তু স্মার্টফোনগুলো এক ধরনের আসক্তি তৈরী করতে পারে যা সাধারণত স্মার্টওয়াচ গুলি ব্যবহার করলে এই আসক্তি গুলো তৈরি হয় না। স্মার্টওয়াচ গুলি আপনাকে সহকারীর মতো প্রতিদিন সাহায্য করে যাবে ।তবে আপনি অকারণে এখানে একটি মিনিট ব্যয় করতে পারবেন না। আর আপনি যদি এত কিছু ব্যবহারের সুবিধা নিতে চান তাহলে আমার মনে হয় স্মার্ট ওয়াচ ব্যবহার করা আপনার জন্য খুবই জরুরী। 

পরিশেষে, বিজ্ঞানের এক অসাধারণ আবিষ্কার হল স্মার্ট ওয়াচ। আপনি স্মার্টওয়াচের মাধ্যমে স্মার্টফোনের সকল সুবিধা পাচ্ছেন। তাছাড়া স্মার্টওয়াচের রয়েছে আরও অনেক ধরনের সুযোগ-সুবিধা তাছাড়া এটি ব্যবহার করা অনেকটা সহজ। যোগাযোগের ক্ষেত্রে এটা নিয়ে এসেছে অপু তোমায় পরিবর্তন। তাই আপনি যদি সব ধরনের সুবিধা একসাথে পেতে চান অবশ্যই স্মার্টওয়াচ ব্যবহার করা শুরু করুন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *