অনলাইন ব্যবসা কী? কেন করবেন? প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র ও আইডিয়া

বর্তমান বিশ্বে প্রযুক্তির উন্নয়নের সাথে সাথে ইন্টারনেট জগৎটা পৌঁছে গিয়েছে।কেনাকাটা, বিভিন্ন সেবা থেকে শুরু করে অনলাইন সেক্টরে হচ্ছে সব ধরনের ব্যবসা। বর্তমানে এই অনলাইন ব্যবসা [অনলাইনের মাধ্যমে ব্যবসা] করে অনেকেই স্বাবলম্বী হচ্ছেন খুব কম সময়ের মধ্যে। আবার এর মধ্যে কেউ কেউ অনলাইন ব্যবসা থেকে ছিটকে চলে যাচ্ছেন। আজকে আমি আপনাদের সাথে এই আর্টিকেলে আলোচনা করব অনলাইন ব্যবসা কি এবং অনলাইন ব্যবসা কিভাবে করবেন আরো বিস্তারিত অনেক কিছু।তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক অনলাইন ব্যবসার সম্পর্কে-

অনলাইন ব্যবসা কি 

অনলাইন ব্যবসা হলো  যে সমস্ত ব্যবসাকে ভার্চুয়াল ভাবে নিয়ন্ত্রণ করা যায় তাকে বলা হয়ে থাকে অনলাইনে ব্যবসা। অর্থাৎ যে সকল ব্যবসা-গুলো একটি কম্পিউটার ও ইন্টারনেট কানেকশনের মাধ্যমে কাস্টমারদের সাথে যোগাযোগ এবং সকল কার্যক্রম পরিচালনা করা সম্ভব সেগুলো হলো মূলত অনলাইন ব্যবসা।

মনে করুন আপনার একটি ওয়েবসাইট রয়েছে সেখানে আপনি গ্যাসের চুলা রেখে কাস্টমারদের কাছে বিক্রির প্রস্তাব করেছেন। কাস্টমার যদি ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনার গ্যাসের চুলা অর্ডার করে তাহলে আপনি গ্যাসের চুলা তার বাড়িতে পৌঁছে দেবেন। আর সাধারনত এই প্রক্রিয়ার মাধ্যমে যে ব্যবসা পরিচালনা করা হয়ে থাকে তাকেই বলা হয়ে থাকে অনলাইনে ব্যবসা।

অনলাইন এবং অফলাইন ব্যবসার মধ্যে পার্থক্য 

সাধারণত অনলাইন এবং অফলাইন ব্যবসার মধ্যে অনেক ধরনের পার্থক্য রয়েছে। আপনি যদি অনলাইনের মাধ্যমে ব্যবসা পরিচালনা করতে চান তাহলে আপনাকে অনেক বিষয়ে দক্ষ হতে হবে। দেশে সাধারণত ইচ্ছা করলে অনলাইনে ব্যবসা করতে পারবে না।

কেন অনলাইনে ব্যবসা করবেন 

সাধারণত আপনি অনলাইন ব্যবসা কেন করবেন আমি সেই বিষয়ে বিস্তারিত আপনাদের আজ বলবো। অনলাইনে ব্যবসার রয়েছে অনেক ধরনের সুবিধা। অনলাইন ব্যবসার লোকাল বা প্রচলিত ব্যবসা চেয়ে বিজ্ঞাপন, লোকেশন, সময় ইত্যাদি প্রত্যেকটা বিষয় নিয়ে একত্রে যদি বিবেচিত করা যায় তাহলে অনলাইন ব্যবসা প্রচলিত ব্যবসার চেয়ে অনেক সহজ। আপনি অল্প পুঁজিতে অধিক মুনাফা অর্জন করতে পারবেন অনলাইন ব্যবসা করার মাধ্যমে। 

অনলাইন ব্যবসায় যেমন প্রচলিত ব্যবসার চেয়ে অনেক বেশি মুনাফা অর্জন করা যায় তাই আপনি ইচ্ছা করলে অনলাইন ব্যবসা শুরু করতে পারেন। তবে অনলাইনে যদি আপনাকে ব্যবসা করতে হয় আপনাকে বেশ কিছু নিয়ম-কানুন এবং আইডিয়া নিয়ে আপনাকে ব্যবসায় নামতে হবে। তাহলে চলুন জেনে নেয়া যাক অনলাইন ব্যবসার কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য –

অনলাইন ব্যবসা শুরু করার জন্য যা যা প্রয়োজন 

আপনি যদি অনলাইন ব্যবসা শুরু করতে চান তাহলে আপনাকে কয়েকটি জিনিস মাথায় রাখতে হবে এবং তারপর আপনাকে অনলাইন ব্যবসায় নামতে হবে না হলে আপনি মাঝপথেই থেমে যেতে পারেন। 

অনলাইন ব্যবসার আইডিয়া 

আপনি অনলাইনে ব্যবসা করুন আর অফলাইনে ব্যবসা করুন আপনাকে প্রথমে যে বিষয়টা মাথায় রাখতে হবে সেটা হচ্ছে একটি সুন্দর পরিকল্পনা। আপনি যদি শুরুতে ভালো কোন আইডিয়া নিয়ে ব্যবসা শুরু করতে না পারেন তাহলে সেই ব্যবসা থেকে ভালো মুনাফা আপনি অর্জন করতে পারবেন না। তাই অনলাইন ব্যবসা শুরু করার পূর্বে আপনাকে মুনাফা, বিনিয়োগ, লোকেশন বিজনেস প্লান সবকিছু ঠিকঠাক ভাবে পরিকল্পনা  করে নিতে হবে। 

অনলাইন ব্যবসার জন্য ট্রেড লাইসেন্স 

অনলাইন ব্যবসার ক্ষেত্রে ট্রেড লাইসেন্সের কথা বলতে গেলে বর্তমানে যারা ই-কমার্স ওয়েবসাইট এ পণ্য বা প্রোডাক্ট বিক্রি করে থাকেন বা ব্যবসা করে থাকেন তাদের স্থানীয় সরকারি বা বেসরকারি অফিস থেকে একটি ট্রেড লাইসেন্স সংগ্রহ করতে হয়। অনলাইন ব্যবসার ক্ষেত্রে আমাদের দেশে এতটা ধরাবাধা নিয়ম এখনো করেনি। তাই অনেকের সাধারণত কোন ধরনের ট্রেড লাইসেন্স না নিয়েই অনলাইন ব্যবসা দীর্ঘদিন ধরে পরিচালনা করে যাচ্ছেন।

অনলাইন ব্যবসার প্রকারভেদ 

অনলাইন ব্যবসা করার জন্য কয়েকটা প্রকারভেদ বা ধরন রয়েছে। নিচের তা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো। আর গুরুত্বপূর্ণ একটি কথা হচ্ছে অনলাইনে ব্যবসা মূলত দুই রকমের হয়-

১.সার্ভিস প্রদান বা সার্ভিস বিক্রয় 

২.পণ্য বিক্রয় 

আরো জানুনঃ এসইও কি? কীভাবে করবেন?

সার্ভিস প্রদান বিক্রয় 

অনলাইন ব্যবসা গুলোর মধ্যে জনপ্রিয় যে ব্যবসা গুলো রয়েছে তার মধ্যে সার্ভিস প্রদান বিক্রয় ব্যবসাটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ। 

অনলাইন সার্ভিস প্রদান ব্যবসাকে আবার দুই ভাগে বিভক্ত করা হয়ে থাকে।

১.ডিজিটাল সার্ভিস 

২.সরাসরি সার্ভিস 

আমি আজকে আপনাদের সাথে ডিজিটাল সার্ভিস নিয়ে আলোচনা করব। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক অনলাইনে ডিজিটাল সার্ভিসের মাধ্যমে কিভাবে ব্যবসা করবেন-

ডিজিটাল সার্ভিস 

যারা সাধারণত অনলাইনে ব্যবসা করে থাকেন তাদের প্রথম পছন্দ হয়ে থাকে ডিজিটাল সার্ভিস গুলো। কেননা ডিজিটাল সার্ভিস গুলো প্রদান করতে খুবই সহজ এবং এগুলো ঘরে বসে সহজে হাতে কলমে কাজগুলো করা যায়। অনলাইনে ব্যবসা ডিজিটাল সার্ভিস এর মধ্যে অন্যতম যে সার্ভিস সেগুলো হলোঃ

ওয়েব ডিজাইন 

ডিজিটাল সার্ভিস গুলোর মধ্যে অন্যতম হচ্ছে ওয়েব ডিজাইন। কেউ চাইলে কয়েকজন ওয়েব ডিজাইনার কে নিয়ে একটি টিম করে একটি এজেন্সি গঠন করতে পারে। তারপর আপনি বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস থেকে কাজ নিয়ে এই এজেন্সির সদস্যদের নিয়ে কাজগুলো শেষ করে আপনি আপনার ব্যবসার প্রচার বা প্রসার খুব সহজে বাড়াতে পারেন। 

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট 

ডিজিটাল সার্ভিস গুলোর মধ্যে web-development খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি কাজ। আমাদের বর্তমান পৃথিবীতে অসংখ্য ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলো ডেভেলপ করা লাগে। কোন ওয়েবসাইটের ভেতরে কোন সমস্যা হলে তারা বাইরের লোক নিয়ে তারা তাদের ওয়েবসাইটের সেই সমস্যার সমাধান করিয়ে থাকেন। আপনি যদি একটা ওয়েব ডেভেলপ এজেন্সি খুলতে পারেন তাহলে আপনি বিভিন্ন মার্কেটপ্লেস থেকে তাদের কাজ এনে দিয়ে তাদের মাধ্যমে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করতে পারবেন। 

গ্রাফিক্স ডিজাইন 

গ্রাফিক্স ডিজাইন হল মূলত একটি সৃজনশীল পেশা। আপনার ভেতরের যদি ক্রিয়েটিভিটি থাকে তাহলে আপনি কয়েকজন গ্রাফিক্স ডিজাইনার কে নিয়ে ভালো একটি এজেন্সি করে তুলতে পারেন। বর্তমানে ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেসগুলোতে গ্রাফিক্স ডিজাইনারদের ব্যাপক চাহিদা রয়েছে। কেউ যদি গ্রাফিক্স ডিজাইনকে ঘিরে ব্যবসা করেন তাহলে সে খুব দ্রুত উন্নতি করতে পারবে এবং অনেক টাকা আয় করতে পারবে এর মাধ্যমে। 

লোগো ডিজাইন

লোগো ডিজাইন হলো সাধারণত গ্রাফিক্স ডিজাইন এর একটি অংশ। লোগো ডিজাইন এ এজেন্সিগুলোকে ছোট ছোট লোগো ডিজাইন করে দিয়ে বড় বড় কোম্পানি থেকে ভালো পরিমাণে টাকা আয় করা সম্ভব। যেহেতু এটি গ্রাফিক্সের একটি অংশ তাই এতে প্রচুর সৃজনশীলতার প্রয়োজন রয়েছে। 

একজন সৃজনশীল ব্যক্তি ছাড়া গ্রাফিক ডিজাইনারের কাজের খুব বেশি উন্নতি করা সম্ভব নয়। তাই আপনাকে লোগো ডিজাইন তৈরি করার আগে অবশ্যই ভাবতে হবে আপনি এই বিষয়ে কতটুকু বোঝেন। 

ডোমেইন ব্যবসা 

বর্তমান বিশ্বে প্রতিনিয়ত বিভিন্ন ধরনের ওয়েবসাইট তৈরি হচ্ছে। আর সাধারনত একটি ওয়েবসাইট তৈরি করতে গেলে ডোমেইন বাধ্যতামূলক। তাই যারা সাধারণত ওয়েবসাইট তৈরি করছে তারা অবশ্যই একটি ওয়েবসাইটের জন্য ডোমেন রেজিস্ট্রেশন  করে থাকেন। কেউ বড় কোন কোম্পানি থেকে ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করে থাকেন আবার কেউ ছোট কোন কোম্পানি থেকে ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন করে থাকেন।আপনি চাইলে ডোমেন প্রোভাইডার এর মাধ্যমে ডোমেইন রেজিস্ট্রেশন এর ব্যবসা করতে পারেন।  ডোমেইন রেজিষ্ট্রেশন রিসেলার ব্যবসা করতে গেলে আপনাকে শুধু একটি ওয়েবসাইট তৈরি করে সেখানে প্রসেসিং গুলো রেডি করে রাখতে হবে।

পরিশেষে, অনলাইন ব্যবসা প্রচলিত ব্যবসা হচ্ছে অনেক সহজ এবং এখানে অনেক বেশি পরিমানে আয় করা যায়। কিন্তু এর জন্য আপনাকে সঠিক নিয়ম কানুন জানতে হবে এবং দক্ষ হয়ে গড়ে উঠতে হবে তাহলে আপনি এখান থেকে অধিক মুনাফা অর্জন করতে পারবেন। অনলাইনে ব্যবসা করে আমাদের দেশের অনেক তরুণ মাসে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করে চলেছে। অনলাইনে ব্যবসা করতে হলে আপনার দরকার ধৈর্য, পরিশ্রম এবং অধ্যাবসায় এই তিনটি জিনিস আপনার ভেতরে থাকলে আপনিও অনলাইনে ব্যবসা করে আয় করতে পারবেন। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *